০৫ জুন ২০২৩, সোমবার, ০১:৪০:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অভিজ্ঞতা ছাড়াই দারাজে পার্ট টাইম চাকরি, ৩০০ জনকে নিয়োগ তীব্র দাবদাহর কারনে দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা লাইভে এসে পরীমণির স্বামী রাজ যা বললেন নতুন অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে ১৩ ধরনের জ্বালানি তেল ও পেট্রোলিয়াম পণ্যের দাম কমেছে হবিগঞ্জে বাস অটোরিকশার সংঘর্ষে ৩ জন নিহত, আহত অনেকেই ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় যেসব খাবার, কিছু খাবার ফিটনেস ও হার্টের জন্য ভালো নয় আমের রাজ্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ এখন পূর্ণ মৌসুম পরিবেশ বাঁচাতে অবৈধ স্মার্ট পণ্য আমদানিতে কঠোর পদক্ষেপ দাবি, বিআইজেএফ বর্তমানে দেশে ১৭০০ মেগাওয়াটের বেশি লোডশেডিং চলছে, নসরুল হামিদ প্রথমবারের মতো বন্ধ হচ্ছে পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র উৎপাদন
যুক্তরাজ্যের চিন্তা বাড়িয়ে সৌদি সফরে যাচ্ছে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং
সাইফুল ইসলাম মুন্না
  • আপডেট করা হয়েছে : ২০২২-১২-০৭
যুক্তরাজ্যের চিন্তা বাড়িয়ে সৌদি সফরে যাচ্ছে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন দায়িত্ব গ্রহণ করার পর থেকেই সৌদি আরবের সঙ্গে যেন যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের ভাটা পড়েছে। এছাড়াও চলমান রাশিয়ান যুদ্ধ কে কেন্দ্র করে জ্বালানি তেলসহ নানা ইস্যুতে রিয়াদ ওয়াশিংটন এর মধ্যে বিভিন্ন সময় কথার লড়াই দেখা গিয়েছে। রুশ আগ্রাসন শুরুর পর তেলসহ নানা ইস্যুতে রিয়াদ ও ওয়াশিংটনের মধ্যে আগে থেকে বিদ্যমান দূরত্বও যেন রূপ নিয়েছে উত্তেজনায়।

এবার নতুন এসো দেখা দিয়েছে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং সৌদি আরব সফরকে কেন্দ্র করে। মূলত তাইওয়ান ইস্যুকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র চীনের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটনের সঙ্গে বেইজিং-রিয়াদের উত্তেজনার মধ্যেই সৌদি আরব সফরে যাচ্ছেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। চলতি সপ্তাহেই এই সফর অনুষ্ঠিত হতে পারে। এ বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সিএনএন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যুক্তরাষ্ট্র এবং সৌদি আরব ও চীন এর মধ্যকার উত্তেজনার মধ্যেই চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং সৌদি আরব সফরে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয় সবকিছু ঠিক থাকলে চীনা প্রেসিডেন্ট সৌদি আরবে এসব সফর করতে পারেন।

এ সময় সংবাদ মাধ্যমটি বেশ কয়েকটি সূত্র উল্লেখ করে জানায় যে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে চীনা প্রেসিডেন্ট সফরের সময় চীন ও সৌদি আরবের মধ্যকার একটি শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ওই সম্মেলনে ১৪টি আরব দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। যা যুক্তরাষ্ট্রকে ভাবাচ্ছে। গত সপ্তাহে সৌদি সরকার সঠিক তারিখ নিশ্চিত না করেই শীর্ষ সম্মেলন কভার করার জন্য সাংবাদিকদের নিবন্ধন ফর্ম পাঠিয়েছে। এছাড়া শি জিনপিংয়ের সফর এবং নির্ধারিত শীর্ষ সম্মেলন সম্পর্কে তথ্যের জন্য সিএনএন যোগাযোগ করলেও কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে সৌদি সরকার।

উল্লেখ্য রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র দেশগুলো সৌদি আরবকে তেল উৎপাদন বৃদ্ধি করতে বলে। কিন্তু সৌদি সরকার যুক্তরাষ্ট্রকে জানিয়ে দেয় যে তাদের পক্ষে বাড়তি তেল উৎপাদন করা সম্ভব নয়। যার ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি সংকট দেখা দেয় এবং এতে করে দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক ধীরে ধীরে খারাপ হতে থাকে। 

সম্প্রতি তেল-উৎপাদনকারী শীর্ষ দেশগুলোর জোট ওপেক প্লাস দৈনিক ২০ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানোর ব্যাপারে একটি ঐকমত্যে পৌঁছায়। যা ২০২০ সালের পর থেকে সর্বোচ্চ। এছাড়া ওপেক প্লাসের তেল উৎপাদান কমানোর এই হার বৈশ্বিক সরবরাহের প্রায় ২ শতাংশের সমান।

যদিও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র দেশ হওয়ার পরেও জ্বালানি তেল উৎপাদন থেকে সরে আসা বিশ্লেষকেরা একে রাশিয়ার পক্ষে সৌদি আরবের সমর্থন বলে ধারণা করছে। যা মূলত উভয় দেশের কূটনৈতিক দূরত্ব প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি করছে। মূলত সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার ঘটনার পর থেকেই মানবাধিকার সংগঠনগুলো সৌদি রাজ পরিবারের বিরুদ্ধে একেরপর এক অভিযোগ আনতে শুরু করে। এতে করে দুই দেশের মধ্যকার দূরত্ব বৃদ্ধি পেতে থাকে।

শেয়ার করুন