০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, বুধবার, ০৪:০৫:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সুষ্ঠুভাবে ভোট হলে আমি দুই আসনেই বিপুল ভোটে জয়লাভ করবো, হিরো আলম বিদ্যুৎ খাতে সরকারের লুটপাটের মাশুল দিচ্ছে জনগণ, ফখরুল ফের শীত বাড়তে পারে, জানালো আবহাওয়া অধিদপ্তর সাগরে নিম্নচাপ সৃষ্টি, তাপমাত্রা কমতে পারে ১-৩ ডিগ্রি হজে যেতে ৬ লাখ ৮৩ হাজার ১৮ টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে বাংলা ভাষায় রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভোটকেন্দ্রের ভেতর থেকে ককটেল উদ্ধার হিরো আলমকে গাড়ি উপহার দিতে চান এক শিক্ষক, তবে হিরো আলমের দাবি তিনি গড়িমসি করছেন আঙুলের ছাপ না মেলায় ভোট না দিয়েই ফিরে গেলেন বৃদ্ধা কল্পনা রানী শঙ্কার মধ্যেই বগুড়া-৪ ও ৬ আসনের উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে
বাংলাদেশে প্রতিবছর বায়ু দূষণে মারা যাচ্ছেন ৮০ হাজার মানুষ
বৃত্ত মিডিয়া ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ২০২২-১২-২২
বাংলাদেশে প্রতিবছর বায়ু দূষণে মারা যাচ্ছেন ৮০ হাজার মানুষ

উচ্চমাত্রার বায়ু দূষণের কারণে বাংলাদেশে প্রতিবছর ৮০ হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন। জিডিপির ক্ষতি হচ্ছে ৩.৯ থেকে ৪.৪ শতাংশ।বায়ু দূষণে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে শিশু ও বয়োজ্যেষ্ঠরা।সেইসাথে শ্বাসকষ্ট, কাশি, নিম্ন শ্বাসনালীর সংক্রমণসহ  বিষন্নতার ঝুঁকি বাড়ছে। বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তিদের  ডায়াবেটিস, হার্ট ও শ্বাসযন্ত্রের অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

বিশ্বব্যাংকের একটি নতুন প্রতিবেদন বলছে, ঢাকা শহরে বায়ু দূষণ বাড়িয়েছে। রাজধানীতে সারি সারি ইটভাটা থেকে প্রতিনিয়ত ধোঁয়া নির্গত হচ্ছে চলছে মেট্রোরেলসহ নির্মাণকাজ। যানজট তো নিত্যদিনের সমস্যা। এসব কারণে রাজধানীর বায়ু দূষণ আশঙ্কাজনক হারে  বিপদজনক পর্যায়ে পৌঁছেছে।

এক তথ্যের ভিত্তিতে বিশ্বব্যাংক বলছে , ২০১৩ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত  তথ্যের ভিত্তিতে দিনে ২টি সিগারেট খেলে মানবদেহের যে পরিমাণ ক্ষতি হয়, বায়ু দূষণের কারণে নগরবাসী প্রতিদিন সেই পরিমাণ ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে । বিশেষ করে নবজাতক ও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু এবং বয়োজ্যেষ্ঠরা বেশি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে ।

এদিকে প্রতিনিয়তই হাঁচি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট বাড়ছে।এর কারণে প্রতিবছর প্রায় ৮০ হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন। সব মিলিয়ে বছরে গড়ে জিডিপির ক্ষতি প্রায় সাড়ে চার শতাংশ। 

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন প্রকাশ করার পর বারবার নানা উদ্যোগ নিয়েও ইটভাটা বন্ধ করা যাচ্ছে না। বরং মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের রোষানলে পড়তে হচ্ছে।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়ে বাংলাদেশে বায়ু দূষণের শীর্ষে রয়েছে ঢাকা। এরপর বরিশাল, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগ। আর সবচেয়ে কম বায়ু দূষণ সিলেট বিভাগে। 

এদিকে ডব্লিউএইচও নির্দেশিত মাত্রার তুলনায় পিএমএএসএর সংস্পর্শে এক শতাংশ বৃদ্ধির ফলে একজন ব্যক্তির শ্বাসকষ্টের সম্ভাবনা ১২.৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে পারে। ভেজা কাশি হওয়ার সম্ভাবনা ১২.৫ শতাংশ এবং নিম্ন শ্বাসকষ্ট হওয়ার ঝুঁকি ৮.১ শতাংশ বেশি।

বিশ্বব্যাংকের ওই প্রতিবেদনে জনস্বাস্থ্য পরিষেবা এবং প্রক্রিয়ার উন্নতি, বায়ু দূষণের ডেটা মনিটরিং সিস্টেমের উন্নতি, প্রারম্ভিক ওয়েমিং সিস্টেমে বিনিয়োগ করাসহ বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।


শেয়ার করুন