০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, বুধবার, ০৩:৩২:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সুষ্ঠুভাবে ভোট হলে আমি দুই আসনেই বিপুল ভোটে জয়লাভ করবো, হিরো আলম বিদ্যুৎ খাতে সরকারের লুটপাটের মাশুল দিচ্ছে জনগণ, ফখরুল ফের শীত বাড়তে পারে, জানালো আবহাওয়া অধিদপ্তর সাগরে নিম্নচাপ সৃষ্টি, তাপমাত্রা কমতে পারে ১-৩ ডিগ্রি হজে যেতে ৬ লাখ ৮৩ হাজার ১৮ টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে বাংলা ভাষায় রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভোটকেন্দ্রের ভেতর থেকে ককটেল উদ্ধার হিরো আলমকে গাড়ি উপহার দিতে চান এক শিক্ষক, তবে হিরো আলমের দাবি তিনি গড়িমসি করছেন আঙুলের ছাপ না মেলায় ভোট না দিয়েই ফিরে গেলেন বৃদ্ধা কল্পনা রানী শঙ্কার মধ্যেই বগুড়া-৪ ও ৬ আসনের উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে
ফ্রান্সে অবৈধভাবে অর্থ পাঠানোর দিকে ঝুঁকছেন প্রবাসীরা
অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ২০২২-১১-২৬
ফ্রান্সে অবৈধভাবে অর্থ পাঠানোর দিকে ঝুঁকছেন প্রবাসীরা

বৈধ কাগজপত্র না থাকায় এবং হুন্ডিতে ডলারের বিপরীতে বেশি টাকা পাওয়ায় অবৈধভাবে অর্থ পাঠানোর দিকে ঝুঁকছেন প্রবাসীরা।সেই সাথে ফ্রান্সে কমেছে রেমিট্যান্সপ্রবাহ। 

এদিকে ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন,  বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে প্রবাসীদের উৎসাহিত করতে দূতাবাসের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কার্যক্রম চলমান।

বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের অন্যতম খাত রেমিট্যান্স তবে হঠাৎ করেই কমে গেছে এই আয়। প্রবাসীদের অবৈধ পথে অর্থ লেনদেন কমিয়ে দিয়েছে রেমিট্যান্সপ্রবাহ।

তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, ২০২১-২২ অর্থবছরে কেবল ফ্রান্স থেকেই ২ লাখ ৫৫ হাজার ৯৭ মিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা, যা গড়ে প্রতি মাসে ২১ মিলিয়ন ডলার। ২০২২-২৩ অর্থবছরে সেই সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ১৯ দশমিক দুই এক মিলিয়ন ডলার।

বৈধ পথে রেমিট্যান্স না পাঠানোকে অন্যতম কারণ হিসেবে মনে করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তারা বলছেন, রেমিট্যান্স কমে যাওয়ার পেছনে এটিই প্রধান কারন,  ফ্রান্সে বসবাসরত অনেক প্রবাসীর বৈধ কাগজপত্র না থাকায় তারা বাধ্য হয়ে হুন্ডির মাধ্যমে টাকা পাঠাচ্ছেন।

একপ্রবাসীর মতে, আমাদের বৈধ কোনো কাগজ নেই তাই বাধ্য হয়ে আমাদের হুন্ডির মাধ্যমে টাকা পাঠাতে হয়। এখন রেমিট্যান্সের হার অনেক কম। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের আগে যে হার ছিল তা এখন অনেক কমে গেছে। তবে, যখন টাকার দাম বাড়ছে তখন রেমিট্যান্সের প্রবাহও বাড়ছে।

ফ্রান্সের বাংলাদেশ দূতাবাস বলছে, জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাওয়ায় প্রবাসীদের সঞ্চয় কমে গেছে, যা দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর পরিমাণ কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ।দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,  বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের উৎসাহিত করতে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে 


শেয়ার করুন